×
  • আপডেট টাইম : 04/03/2020 11:41 AM
  • 99 বার পঠিত

জল্পনা-কল্পনা শেষে বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকে অভিনয় করবেন, এমন ৫০ জন অভিনয়শিল্পীর নাম বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশন (বিএফডিসি) কর্তৃপক্ষ তাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করেছে। তালিকায় দেখা গেছে, বঙ্গবন্ধুর জীবনী নিয়ে তৈরি এই ছবিতে তাঁর স্ত্রীর ছোটবেলার চরিত্রে অভিনয় করবেন প্রার্থনা দীঘি। তবে আনুষ্ঠানিকভাবে এখনো বিষয়টি দীঘিকে না জানানোর কারণে তেমন কোনো কথা বলতে চাইলেন না তিনি। জানিয়ে রেখেছেন, এমন ঘটনা যদি সত্যি হয়, তাহলে জীবনের অন্যতম একটা আনন্দের ঘটনা হবে।

‘বাবা জানো, আমাদের একটা ময়না পাখি আছে না, সে আজকে আমার নাম ধরে ডেকেছে, আর এ কথাটা না মা কিছুতেই বিশ্বাস করছে না, আমি কি তাহলে ভুল শুনেছি, কেমন লাগে বলো তো’—একটি মুঠোফোন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের এই একটি সংলাপের মাধ্যমেই সবার প্রিয়মুখ হয়ে ওঠে শিশুশিল্পী দীঘি। ১৩ বছর আগের সেই দীঘি এখন আর ছোট্টটি নেই। সে কলেজের শিক্ষার্থী। শিশুশিল্পী হিসেবে দীঘি ৩৮টি ছবিতে অভিনয় করেছেন। তিনটি ছবিতে অভিনয়ের জন্য শিশুশিল্পী হিসেবে অর্জন করেছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। আট বছর পর দীঘি সিনেমায় অভিনয়ে ফিরলেন, এখন আর শিশুশিল্পী হিসেবে নয়। দীঘি অভিনয় করবেন বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকে।

গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় দীঘির সঙ্গে ‘বঙ্গবন্ধু’ বায়োপিক নিয়ে আলাপ করলে বললেন, ‘৫০ জনের তালিকা আমিও দেখেছি। সেখানে আমার নাম আছে, তা–ও দেখলাম। কিন্তু এখন পর্যন্ত আমাকে চরিত্রটির ব্যাপারে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানায়নি। তাই কিছু বলতেও পারছি না।’

তবে অডিশনের বিষয়টির কথা বললেন। ৯ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ টেলিভিশন ভবনে দীঘি অডিশন দেন। বললেন, ‘আমি অডিশন দিয়েছিলাম। তখন আমাকে কোন চরিত্রের জন্য অডিশন দিচ্ছি কিছু বলাও হয়নি। তাই আমি বলতেও পারছি না। তা ছাড়া একেকটি চরিত্রের জন্য কয়েকজন করে অডিশন দিয়েছেন।’

 

তথ্য মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তির প্রসঙ্গ মনে করিয়ে দিতেই দীঘি বলেন, ‘যদি এ ধরনের কোনো ঘটনা ঘটে, রেণু চরিত্রের জন্য আমাকে নির্বাচিত করা হয়ে থাকে, তাহলে এটা অনেক বড় সম্মানের ব্যাপার। এটা ইতিহাসের অংশ হতে পারা। অডিশনের পর থেকে অবশ্য বাবা আমাকে বঙ্গবন্ধুর জীবনীসহ অনেকগুলো বই এনে দিয়েছেন। অডিশনের পর থেকে আমি এই বইগুলো পড়ছি। যদি অভিনয় করি, তাহলে এসব পড়া আমার বেশ কাজে দেবে।’

শিশুশিল্পী হিসেবে ২০০৬ সালে ‘কাবুলিওয়ালা’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করে দীঘি প্রথম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন। এরপর ২০০৮ সালে ‘এক টাকার বউ’ এবং ২০১০ ‘চাচ্চু আমার চাচ্চু’ ছবিতে অভিনয়ের জন্যও দীঘি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন। ২০১২ সালে সর্বশেষ অভিনয় করেন ‘ছোট্ট সংসার’ ছবিতে।

 

বঙ্গবন্ধুর জীবনী নিয়ে তৈরি চলচ্চিত্রে বঙ্গবন্ধু হিসেবে দেখা যাবে চিত্রনায়ক আরিফিন শুভকে। এ মাসের ১৮ তারিখ থেকে বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের শুটিং শুরু হবে বলে প্রথম আলোকে নিশ্চিত করেছেন এফডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক নুজহাত ইয়াসমিন। বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অন্য গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রগুলোতে আরও অভিনয় করছেন খায়রুল আলম সবুজ (লুৎফর রহমান), দিলারা জামান (সায়েরা খাতুন), জান্নাতুল সুমাইয়া (বড় শেখ হাসিনা), নুসরাত ফারিয়া (ছোট শেখ হাসিনা) সায়েম সামাদ (সৈয়দ নজরুল ইসলাম), শহীদুল আলম সাচ্চু (এ কে ফজলুল হক), নুসরাত ইমরোজ তিশা (ফজিলাতুন্নেছা), প্রার্থনা দীঘি (ফজিলাতুন্নেছা), রাইসুল ইসলাম আসাদ (আবদুল হামিদ খান ভাসানী), গাজী রাকায়েত (আবদুল হামিদ), ফেরদৌস আহমেদ (তাজউদ্দীন আহমদ), তৌকীর আহমেদ (সোহরাওয়ার্দী), সিয়াম আহমেদ (শওকত মিয়া) ও মিশা সওদাগর (জেনারেল আইয়ুব খান)।

 

বায়োপিক-সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা জানিয়েছেন, বাংলাদেশ ও ভারতের যৌথ প্রযোজনার এই চলচ্চিত্রের জন্য প্রাথমিকভাবে ৩৫ কোটি টাকা বাজেট ধরা হয়েছে। এই বাজেটের ৬০ ভাগ দিচ্ছে বাংলাদেশ ও ৪০ ভাগ ভারত সরকার। বায়োপিকটি নির্মাণে শ্যাম বেনেগালের সহযোগী পরিচালক হিসেবে কাজ করছেন দয়াল নিহালানি। চিত্রনাট্য করেছেন অতুল তিওয়ারি ও শামা জায়েদি। শিল্পনির্দেশনার দায়িত্ব পেয়েছেন নীতিশ রায়। কাস্টিং ডিরেক্টর হিসেবে আছেন শ্যাম রাওয়াত। বাংলা, উর্দু, হিন্দি ও ইংরেজি—এই চারটি ভাষায় ডাব করা হবে ‘বঙ্গবন্ধু’র বায়োপিক—এমনটাই জানা গেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

ফেসবুকে আমরা...