×
  • আপডেট টাইম : 23/04/2018 08:06 AM
  • 52 বার পঠিত
নিজস্ব প্রতিনিধি:- ঢাকা থেকে নেপালের কাঠমান্ডু অভিমুখে ছাড়া বাস দুটি এখন পথে। মোটর ভেহিক্যাল অ্যাগ্রিমেন্টের আওতায় পরীক্ষামূলকভাবে ছেড়েছে দুটি বাস। সোমবার সকাল আড়ে আটটার দিকে ঢাকা-কাঠমান্ডু বাস সার্ভিসের নানা দিক খতিয়ে দেখতে নেপালের উদ্দেশে কমলাপুর বিআরটিসি বা ডিপো থেকে ছেড়ে যায় বাস দুটি। শ্যামলী এন আর ট্রাভেলস-এর হুন্দাই কোম্পানির প্রতিটি বাসে ২৮ করে আসন রয়েছে। বিআরটিসির কমলাপুর ডিপো ম্যানেজার (অপারেশন) আশরাফুল আলম জানান, সকাল সাড়ে আটটার দিকে বাস দুটি উদ্বোধন করে যাত্রা শুরু করে। ভারতের শিলিগুড়ি হয়ে নেপালের কাঠমান্ডু যাবে সেগুলো। পরীক্ষামূলক বাস দুটি কাঠমান্ডু গিয়ে পৌঁছাবে আগামী বৃহস্পতিবার। তিন দিন সময় নিয়ে বাসটি কাঠমান্ডু পৌঁছাবে। নেপালের ত্রিভুবন বিমানবন্দরে ইউএসবাংলা এয়ারলাইন্সের বিমান বিধ্বস্তের পর এই বিমানবন্দরের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কার বিষয়টি জেনেছে বাংলাদেশি যাত্রীরা। এ কারণে বিমানে চলাচল কমে যাওয়ার তথ্য এসেছে। এই অবস্থায় এই বাস চালু হলে বিপুল সাড়া পাওয়ার আশা করছে বিআরটিসি। রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থার কর্মকর্তা আশরাফুল আলম জানান, ঢাকা থেকে শুরু হয়ে রংপুর, বাংলাবান্ধা হয়ে পশ্চিমবঙ্গের ফুলবাড়ি হয়ে শিলিগুড়ি হয়ে কাকড়ভিটা হয়ে কাঠমান্ডু যাবে বাস দুটি। যাত্রাপথে বাংলাদেশ অংশ ও ভারতের অংশে ৩৭ কিলোমিটার অংশ সমতল ভূমি কিন্তু নেপালের অংশের কী অবস্থা সেটাই যাচাই করার জন্য কর্মকর্তারা পর্যবেক্ষণ করবেন। যাত্রীদের জন্য কবে নাগাদ চালু হবে এ বাস সার্ভিস চালু হবে?- এমন প্রশ্নে আশরাফুল বলেন, ‘ভুটান, বাংলাদেশ, নেপাল ও ভারতের মধ্যে একটি চুক্তি হবে যেটা এবারের এ পরীক্ষামূলক যাত্রার হবে। সেটা হয়ে গেলেই আমরা স্থায়ীভাবে চালুর উদ্যোগ নেব।’ এই বাসের ভাড়া কেমন হবে, জানতে চাইলে আশরাফুল আলম বলেন, ‘পরীক্ষামুলকভাবে বাস দুটি যাত্রা শুরু করেছে, এখনও ভাড়া নির্ধারণ করা হয় নাই। বাস সার্ভিস চালু হওয়ার পর অপারেটররা ভাড়া নির্ধারণ করবে। তবে বিমানের চেয়ে অনেক অনেক কম ভাড়া হবে।’ বিআরটিসির কর্মকর্তারা জানান পরীক্ষামূলক বাসটি ঢাকা থেকে ছেড়ে যাওয়ার পর চার দিনের যাত্রা শেষে কাঠমান্ডু পৌঁছলেও যাত্রী নিয়ে এন আর ট্রাভেলস-এর বাস প্রায় ৩০ ঘণ্টায় ঢাকা থেকে কাঠমান্ডু পৌঁছে যাবে। প্রথম দুই বাসে কাঠমান্ডু যাচ্ছেন বাংলাদেশের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা, দাতা সংস্থা এবং ভারত ও নেপালের প্রতিনিধিসহ ৪৫ জন যাত্রী। বিআরটিসি সূত্রে জানা যায়, এই বাসে করে নেপাল যেতে হলে ভারতের মাল্টিপল ও ডাবল এন্ট্রি ভিসা নিয়ে যেতে হবে। তবে ভিসা প্রক্রিয়া সহজ করা হতে পারে। এক্ষেত্রে শুধু পাসপোর্ট দিয়ে অন-অ্যারাইভাল ভিসার মতো একটি পদ্ধতিতে এ ভ্রমণ হতে পারে। যে দুটি বাস ছেড়ে গেছে, তার যাত্রীরা মঙ্গলবার রাতে ভারতের শিলিগুড়ি অবস্থান করবেন। পর দিন সকালে সেখান থেকে নেপালের কাঁকরভিটায় ঢুকবে বাস দুটি। এরপর নেপালের নারায়ণঘাট নামে একটি জায়গায় রাত্রিযাপন করবে প্রতিনিধি দল। ২৬ এপ্রিল সকালে নারায়ণঘাট থেকে কাঠমান্ডুর পথে রওয়ানা হবে বাসটি। ঢাকা থেকে কাঠমান্ডু দূরত্ব কত? ঢাকা থেকে বাংলাবান্ধার দূরত্ব প্রায় ৪৫০ কিলোমিটার। বাংলাবান্ধা থেকে নেপালের কাঁকরভিটা স্থলবন্দরের দূরত্ব মাত্র ৫৪ কিলোমিটার। কাঁকরভিটা থেকে কাঠমান্ডুর দূরত্ব প্রায় ৬০০ কিলোমিটার। এর মধ্যে ২২০ কিলোমিটার পাহাড়ি খাড়া রাস্তা। সবমিলিয়ে সড়কপথে ঢাকা থেকে কাঠমান্ডু এক হাজার ১০৪ কিলোমিটার।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

ফেসবুকে আমরা...